পায়রাবন্দর হবে আন্তর্জাতিক সমুদ্র বন্দর পায়রাবন্দর হবে আন্তর্জাতিক সমুদ্র বন্দর - For update barisal news visit barisallive24.com
বরিশাল, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং। সর্বশেষ আপডেট: ৭ ঘন্টা আগে
শিরোনাম

বার্তা ডেস্ক


পায়রাবন্দর হবে আন্তর্জাতিক সমুদ্র বন্দর

মে ১১, ২০১৮ ১২:৪৪ পূর্বাহ্ণ

পটুয়াখালী : পটুয়াখালীর কলাপাড়ার পায়রা বন্দরের চলমান উন্নয়ন কার্যক্রম নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমোডর এম জাহাঙ্গীর আলম।

 

বৃহস্পতিবার (১০ মে) বিকেলে পায়রা বন্দরের সম্মেলন কক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, পায়রা গভীর সমুদ্র বন্দরের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামো/সুবিধাদির উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পটি ২০১৫ সালের ২৯ অক্টোবরে একনেক কর্তৃক অনুমোদিত হয়। প্রথম ডিপিপিতে মূল বরাদ্দ ছিলো ১ হাজার ১২৮ কোটি ৪৩ লক্ষ ৩১ হাজার টাকা। যে প্রকল্পের আওতায় এ পর্যন্ত ১ হাজার ৪২৭ দশমিক ৪৯ একর ভূমি অধিগ্রহন সম্পন্ন হয়েছে।

 

তিনি বলেন,জমি অধিগ্রহনের সংশোধিত মূল্য বাবদ ১২ শত ২২ কোটি ৮ লক্ষ ৮৮ হাজার টাকা প্রয়োজন হবে। পায়রা বন্দর নির্মানে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পূণর্বাসনের জন্য এক হাজার ৫৯ কোটি টাকা এবং ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের প্রশিক্ষনের জন্য ২৫ কোটি টাকাসহ অন্যান্য আনুসাঙ্গিক কাজ সংশোধিত ডিপিপিতে অন্তরভূক্ত করা হয়েছে। উল্লেখ্য গত ২০ মার্চ ৩ হাজার ৩৫০ কোটি ৫১ লক্ষ ৯ হাজার টাকা আরডিপিপি একনেক কর্তৃক অনুমোদিত হয়েছে।

 

তিনি জানান, ভূমি অধিগ্রহনের ফলে ক্ষতিগ্রস্থ লোকজেনের পুর্ণবাসনের  জন্য ৪৯৩ একর জায়গায় ১৪ টি প্যাকেটে সাড়ে ৩ হাজার বাড়িসহ মসজিদ, স্কুল ইত্যাদি নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়ছে।

 

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের ১৮ থেকে ৩৫ বছরের চার হাজার ২০০ জনকে এ বছরের জানুয়ারি থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত মেয়াদে ৩৫টি শ্রেণিতে কারিগরী ও কর্মসংস্থানমূলক প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। এতে ক্ষতিগ্রস্তদের কর্মসংস্থান হবে, এগিয়ে যাবে জীবন-জীবিকা।

 

পায়রা বন্দরের কার্যক্রম গতিশীল করার লক্ষ্যে  সরকার কর্তৃক অনুমোদিত ১৭৮ টি সৃজন পদের বিপরীতে নিয়োগ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। যেখানে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের সদস্যসহ পটুয়াখালী জেলার বাসিন্দাদের অগ্রধিকার দেয়া হচ্ছে।

 

ক্যাপিটাল ও মেইনটেনেন্স ড্রেজিং, কয়লা টার্মিনাল (ড্রাই বাল্ক) এবং জিওবি অর্থায়নে একটি টার্মিনাল নির্মাণ ২০২০ সালের মধ্যে সম্পন্ন করে পায়রা বন্দরকে ২০২১ সাল হতে আন্তর্জাতিক সমুদ্র বন্দর হিসেবে পুরোপুরি চালু করা হবে।

 

ক্যাপিটাল ড্রেজিংয়ের জন্য পরামর্শক প্রতিষ্ঠান হিসেবে নেদারল্যান্ডের রয়েল হাসকনিংকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ক্যাপিটাল এবং মেনটেইনেন্স ড্রেজিংয়ের কাজটি বাস্তবায়ন করবে পৃথিবী বিখ্যাত কোম্পানী বেলজিয়ামের জান-ডি-নাল। এ বছরের ডিসেম্বর নাগাদ প্রতিষ্ঠানটি কাজ শুরু করবে বলে তিনি জানান।

 

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের সদস্য (প্রশাসন) কমান্ডার (অব) এম রাফিউল হাসান, সদস্য (প্রকৌশল) ক্যাপ্টেন মো. মনিরুজ্জামান, পরিচালক (নিরাপত্তা) লে. কমান্ডার কে এম জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

বরিশাল //এমআর

পাঠকের মতামত:

[wpdevart_facebook_comment facebook_app_id="322584541559673" curent_url="" order_type="social" title_text="" title_text_color="#000000" title_text_font_size="22" title_text_font_famely="monospace" title_text_position="left" width="100%" bg_color="#d4d4d4" animation_effect="random" count_of_comments="3" ]
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য
Developed by: NEXTZEN-IT