মহিলা সদস্যকে চুলের মুঠি ধরে টানলেন ইউপি চেয়ারম্যান! মহিলা সদস্যকে চুলের মুঠি ধরে টানলেন ইউপি চেয়ারম্যান! - For update barisal news visit barisallive24.com
বরিশাল, ২৪শে মে, ২০১৮ ইং। সর্বশেষ আপডেট: ৪৬ মিনিট আগে
শিরোনাম
গৌরনদীতে পাটজাত পণ্য ব্যবহার না করায় ৩ প্রতিষ্ঠানে জরিমানা বিয়ের ১৫ মিনিট পরই স্ত্রীকে তালাক! নারীদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরু ৭ জুলাই বানারীপাড়ায় ভ্রাম্যমান আদালতে দুই মুদি দোকানীকে জরিমানা ও ৩০ মন আম বিনষ্ট ক্যাপ্টেন মোয়াজ্জেম বানারীপাড়ার সলিয়াবাকপুর ফজলুল হক স্কুলের সভাপতি পুর্ননির্বাচিত বানারীপাড়ায় রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি শফিক শাহিন, সম্পাদক সজল চৌধুরী বরিশালে চিংড়ির রেনুসহ আটক ১৪ জনকে জরিমানা বেতন ভাতার দাবিতে শেবাচিম হাসপাতালের কর্মচারীদের মিছিল ও স্মারকলিপি প্রদান রেজিষ্ট্রেশন কার্ড না আসায় জরিমানা ধার্য্য : বরিশালে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন কলাপাড়ায় ইটভটায় হামলা : আহত-৪

বরিশাল লাইভ ডেস্ক


মহিলা সদস্যকে চুলের মুঠি ধরে টানলেন ইউপি চেয়ারম্যান!

এপ্রিল ২৪, ২০১৮ ১১:৩৩ অপরাহ্ণ

ঝালকাঠির রাজাপুর সদর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মো. আনোয়ার হোসেন মজিবর মৃধার বিরুদ্ধে ইউপি সদস্যকে চড়-থাপ্পড় মেরে চুলের মুঠি ধরে টানা, গালাগাল ও হত্যার হুমকির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় ঝালকাঠি প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করেন রাজাপুর সদর ইউনিয়নের সংরক্ষিত আসনের ইউপি সদস্য ও উপজেলা মহিলা লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুন নাহার নিরু।সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে নুরুন নাহার নিরু অভিযোগ করেন, তার ওয়ার্ডের বিধবা ও বয়স্ক ভাতার তালিকা জমা দেয়ার জন্য গত ১৮ এপ্রিল সকাল ১১টায় রাজাপুর মেডিকেল মোড়ে চেয়ারম্যানের রড সিমেন্টের দোকানে যান নুরুন নাহার।

চেয়ারম্যানের কাছে বিধবা ও বয়স্ক ভাতার তালিকা জমা দিলে ওই তালিকা দেখে চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মজিবর মৃধা ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন, এ তালিকায় থাকা ব্যক্তিদের ভাতা দেয়া যাবে না। আমি যে নাম দেব তা দিয়ে তালিকা তৈরি করে দিতে হবে,অন্যথায় পাস করা হবে।

চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মৃধার এ বক্তব্যের প্রতিবাদ করলে সংরক্ষিত ইউপি সদস্য নুরুন নাহার নিরুকে চড়-থাপ্পড় মারেন চেয়ারম্যান।

এ সময় ভয়ে দৌড় দিলে চেয়ারম্যান নুরুন নাহার নিরুকে দাবড়িয়ে চুলের মুঠি ধরে টানাহেঁচড়া করেন এবং গলা টিপে হত্যার চেষ্টা করেন।

এ সময় ইউপি সদস্য মিজান মাঝি ও মোসা. নাজমা ইয়াসমিন চেয়ারম্যানের হাত থেকে নুরুন নাহার নিরুকে রক্ষা করেন।

নুরুন নাহার নিরু বিষয়টি উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মনিরউজ্জামান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, রাজাপুর থানার ওসি ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা আক্তার লাইজুকে জানালেও চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। এ ঘটনার বিচার দাবিতে নুরুন নাহার সংবাদ সম্মেলন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে তার সঙ্গে সংরক্ষিত আসনের মহিলা ইউপি সদস্য নাজমা ইয়াসমিন মুন্নি উপস্থিত ছিলেন।

ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মজিবর মৃধা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, নুরুন নাহার নিরু টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন ব্যক্তিকে বয়স্ক ও বিধবা ভাতা প্রদান করেন, তাই তার তালিকা গ্রহণ করা হয়নি।

পাঠকের মতামত:

[wpdevart_facebook_comment facebook_app_id="322584541559673" curent_url="" order_type="social" title_text="" title_text_color="#000000" title_text_font_size="22" title_text_font_famely="monospace" title_text_position="left" width="100%" bg_color="#d4d4d4" animation_effect="random" count_of_comments="3" ]
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য
TECHNOLOGY: SPIDYSOFT IT GROUP