পুতুল নাচ দেখে উচ্ছসিত বরিশালের দর্শকরা পুতুল নাচ দেখে উচ্ছসিত বরিশালের দর্শকরা - For update barisal news visit barisallive24.com
বরিশাল, ২৫শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং। সর্বশেষ আপডেট: ৬ ঘন্টা আগে
শিরোনাম

বরিশাল লাইভ ডেস্ক


পুতুল নাচ দেখে উচ্ছসিত বরিশালের দর্শকরা

এপ্রিল ১৬, ২০১৮ ৮:৩৯ অপরাহ্ণ

বরিশালে বৈশাখী আয়োজনে ‍পুতুল নাচ দেখে উচ্ছসিত বরিশালের দর্শকরা। রোববার (১৫ এপ্রিল) রাতে বরিশাল কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শব্দাবলী গ্রুপ থিয়েটারের বৈশাখী উৎসব আয়োজনের অংশ হিসেবে এ পুতুল নাচের আয়োজন করা হয়।

বাংলাদেশ পুতুলনাট্য গবেষনা ও উন্নয়ন কেন্দ্র ও জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ব বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সহায়তায় অনুষ্ঠিত এ পুতুল নাচ সর্বসাধারণের জন্য উম্মুক্ত রাখা হয়। শব্দাবলী গ্রুপ থিয়েটারের সাংগঠনিক সম্পাদক মিথুন সাহা জানান, শব্দাবলী বৈশাখী উৎসবের আয়োজনে প্রতিবছর ভিন্নতা রেখে আসছে। ধারাবাহিকতায় দীর্ঘদিন পরে হলেও বরিশালে পুতুল নাচ দেখার আয়োজন করা হয়। যাও আবার সবার জন্য উম্মুক্ত।

রোববার রাত ৭ টা থেকে শুরু হওয়া পুতুল নাচ শিশুদের পাশাপাশি অভিভাবকরা খুব উৎসাহ নিয়ে উপভোগ করেছে। স্কুল শিক্ষার্থী তাশফি রাহমা বলেন, এরআগে কখনো পুতুল নাচ দেখিনি, আজ দেখে অনেক ভালো লেগেছে। পুতুল যে নাচতে, গাইতে পারে তাও দেখলাম।

স্নিগ্ধা নামের এক অভিভাবক বলেন, ১ সন্তানের মা হয়েছি, কিন্তু কোনদিন পুতুল নাচ দেখার সুযোগ হয়নি। তাই আজ মেয়েকে নিয়ে নিজেই পুতুল নাচ দেখতে চলে আসলাম। শিশুতোষ ও সব বয়সের জন্য উপদেশমূলক ছিলো এই পুতুল নাচের আয়োজন। যা আনন্দ যেমন দিয়েছে, তেমনি আমাদের অনেক কিছু শিখিয়েছেও। এ ধরণের আয়োজন বার বার হওয়া উচিত।

বেশ উচ্ছসিত ৬২ বছর বয়স্ক হাবিবুর রহমান বলেন, ছোটবেলায় গ্রামের মেলায় পুতুল নাঁচ দেখেছি, এর শহুরে জীবনে কখনো চোঁখে পরেনি

পুতুল নাচ। নাতির বায়নায় তাকে নিয়ে এসে পুতুল নাঁচ দেখে বেশ ভালো লাগলো। বাংলার ইতিহাস-ঐতিহ্য এবং সময়ের সাথে, যুগের সাথে প্রতিটি স্ক্রিপ্টে মিল রাখা হয়েছে। জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ব বিভাগের ড. রশীদ হারুন বলেন, ধান-নদী-খালের বরিশালের মানুষ অনেক নরম ও গীতিময়।

কথা বললে অনেক মনযোগ দিয়ে শোনে তা আজ দেখা গেলো। আমাদের সাথে পুতুলের সখ্য জন্ম থেকেই। কাল উপযোগী শিক্ষা মূলক উপাস্থাপনা সকলেই উপভোগ করেছে।  তিনি বলেন, শিশুদের অনুষ্ঠান কিন্তু বড়রাও দেখে, কিন্তু বড়দের অনুষ্ঠান শিশুরা তেমন একটা উপভোগ করে না। আর আজ শিশুদের সাথে এখানে অভিভাবকরাও এসেছেন যারাও পুতুল নাচ উপভোগ করেছেন।আমরা পুতুল নাচ নিয়ে বাংলাদেশের সব জায়গাতে যেতে চাই।

তিনি বলেন, সরকারি- বেসরকারিভাবে কিংবা যাদের পৃষ্ঠপোষকতা করার সামর্থ আছে তারা এগিয়ে আসুক। একটি সমৃদ্ধাশালী ও উন্নতজাতি গড়ার মাধ্যম হতে পারে পুতুল নাচ। প্রী-প্রাইমেরি থেকে মাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত বাংলা, ইংরেজি, অংক যে সকল বিষয় রয়েছে তার সকল বিষয়ে আনন্দদায়কভাবে শিক্ষাদানের জন্য পুতুল নাটকের প্রয়োগ করা যেতে পারে। পৃথিবীর নানান দেশে যেমন সিঙ্গাপুরে ২ শত টি স্কুলে ১ দিন পাপেটের সাথে গল্প বা আড্ডা হয় শিশুদের। এতে যেমন ঝড়ে পড়া কমে, তেমনি স্কুলে যাওয়া ও পাঠগ্রহনে শিক্ষার্থীদের আগ্রহ বেড়েছে। বাংলাদেশেও সম্ভাবনা অনেক বেশি রয়েছে। পুতুল সহযোগী শিক্ষার ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

পাঠকের মতামত:

[wpdevart_facebook_comment facebook_app_id="322584541559673" curent_url="" order_type="social" title_text="" title_text_color="#000000" title_text_font_size="22" title_text_font_famely="monospace" title_text_position="left" width="100%" bg_color="#d4d4d4" animation_effect="random" count_of_comments="3" ]
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য
TECHNOLOGY: SPIDYSOFT IT GROUP