আমতলীতে বেতনের দাবীতে শিক্ষকদের ক্লাশ বর্জন আমতলীতে বেতনের দাবীতে শিক্ষকদের ক্লাশ বর্জন - For update barisal news visit barisallive24.com
বরিশাল, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং। সর্বশেষ আপডেট: ২৯ মিনিট আগে
শিরোনাম

বরিশাল লাইভ ডেস্ক


আমতলীতে বেতনের দাবীতে শিক্ষকদের ক্লাশ বর্জন

আগস্ট ১৩, ২০১৮ ৯:০৯ অপরাহ্ণ

আমতলী প্রতিনিধিঃ আমতলী মফিজ উদ্দিন বালিকা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের স্বাক্ষর জটিলতার কারনে দীর্ঘ আট মাস ধরে বেতন বন্ধ থাকায় সোমবার সকাল থেকে বেতনের দাবীতে শিক্ষরা (একাংশ) ক্লাশ বর্জন কর্মসূচী শুরু করে।
বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, এখানে ২০ জন শিক্ষক এবং ৭ জন কর্মচারী রয়েছে। সাবেক প্রধান শিক্ষক শাহআলম কবিরকে বিদ্যালয়ের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ তাকে ২০১২ সালের ২৬ নভেম্বর বরখাস্ত করেন এবং তার বরখাস্তের পর সকহারী শিক্ষক মো: দেলোয়ার হোসেনকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব প্রদান করেন। বরখাস্ত হওয়া সাবেক প্রধান শিক্ষক শাহআলম কবির তার বরখাস্তের আদেশ বাতিলের দাবীতে ২০১৩ সালের ১৫ মে ইচ্চ আদালতে একটি রিট পিটিশন দাখিল করেন। ওই রিট পিটিশনের শুনানি শেষে ২০১৭ সালের ২৪ অক্টোবর বিচারপতি মোয়াজ্জেম হোসেন ও বিচারপতি মো: সোহরাওয়ার্দীর বেঞ্চ তাকে প্রধান শিক্ষক পদে বহালের আদেশ প্রদান করেন। একদিকে আদালতের আদেশ অন্যদিকে বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের নিয়োগ প্রাপ্ত ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক। কে এখন বেতন শিটে স্বাক্ষর করবে এই নিয়ে জটিলতার কারনে ২০১৭ সালের ডিসেম্বর থেকে চলতি বছরের আগস্ট পর্যন্ত ৮ মাস ধরে শিক্ষকরা বেতন ্এবং দুটি ঈদ বোনাস পাচ্ছে না। বেতন বোনাস না পেয়ে শিক্ষকদের এখন পথে বসার মত অবস্থা হয়েছে। অনেকেই তাদের ছেলে মেয়ে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে বলে জানান কয়েকজন শিক্ষক। দীর্ঘ ৮ মাস ধরে বেতন না পেয়ে বিদ্যালয়ের ৮জন শিক্ষক সোমবার সকাল থেকে ক্লাশ বর্জন শুরু করেছে। কারিগড়ি শাখার ক্লাশ বর্জন কারী শিক্ষক হোসেনেয়ার বেগম জানান, তারা বেতন বোনাস না পাওয়া পর্যন্ত ক্লাশে ফিরে যাবে না । গনিত বিষয়ের শিক্ষক শাহনাজ বেগম জানান, দীর্ঘ ৮ মাস ধরে বেতন না পেয়ে আমরা খুব খারাপ অবস্থায় আছি। সোমবার সকালে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায় শিক্ষকরা ক্লাশ বর্জন করায় ৩টি ক্লাশ ছাড়া বাকি ক্লাশের শিক্ষার্থীরা ক্লাশে বসে গল্প করে সময় পার করছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, আমাদের স্যারেরা বেতন পায় না তাই বেতনের দাবীতে তারা ক্লাশ বর্জন করছে। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো: দেলোয়ার হোসেনের জানান, স্কুলের কাজে আমি ঢাকায় অবস্থান করছি। তবে তিনি আংশিক শিক্ষকদের ক্লাশ বর্জনের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, তাদের বেতন বোনাস দেওয়ার জন্য চেষ্টা করছি। । বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি জাকিয়া এলিচ বলেন, শিক্ষকরা যাতে বেতন বোনাস পায় সে বিষয়ে আমি চেষ্টা করছি। আসা করি শিঘ্রই তারা বেতন বোনাস পাবে। আমতলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সরোয়ার হোসেন বলেন, কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে বিষয়টি সুরহার চেষ্টা করা হবে।

বরিশাল/ এএম/

পাঠকের মতামত:

[wpdevart_facebook_comment facebook_app_id="322584541559673" curent_url="" order_type="social" title_text="" title_text_color="#000000" title_text_font_size="22" title_text_font_famely="monospace" title_text_position="left" width="100%" bg_color="#d4d4d4" animation_effect="random" count_of_comments="3" ]
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য
Developed by: NEXTZEN-IT