[english_date], [bangla_day]

বইমেলায় বই ভিজল

আপডেট: February 17, 2019

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

প্রকৃতিতে বইছিল বসন্তের হাওয়া। কিন্তু আজ সকালেই সেই রূপ পাল্টে আকাশে মেঘের ঘনঘটা। শুরু হয় ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে শিলা বৃষ্টি। ঢাকাবাসী এতে ধুলোর রাজ্য থেকে কিছুটা স্বস্তি পেলেও দুর্ভোগ নেমে আসে বই মেলার স্টলগুলোতে। বিক্রেতারা বলছেন, বই ও স্টল ভিজে কয়েক লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, সকাল ছয়টা থেকে আটটা পর্যন্ত তিন ঘণ্টায় ঢাকায় ২০ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টির রেশ আরও কদিন থাকতে পারে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়।

আজ রোববার দুপুরে বই মেলা প্রাঙ্গণে গিয়ে দেখা যায়, বিভিন্ন স্টলের বিক্রেতারা বই শুকাতে ব্যস্ত। রশি টানিয়ে, পলিথিন বিছিয়ে বই শুকানো হচ্ছে। আবার অনেক স্টল মেরামত করছেন মিস্ত্রিরা। এরই মধ্যে আকাশ হঠাৎ কালো করলেই সতর্ক হচ্ছেন সবাই। মেলা প্রাঙ্গণে কোথাও কোথাও পানি জমে আছে। শিশু চত্বরের সামনেটা কর্দমাক্ত।

বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অন্বেষা, ইউপিএল, নালন্দাসহ কয়েকটি প্রকাশনী। নালন্দার বিক্রয়কর্মী আফসানা আশা রশিতে শুকানো বইয়ের মলাট গোছাচ্ছিলেন। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমাদের তো লাখ টাকার ওপরে বই ক্ষতি হয়েছে।’

বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের প্রকাশনা কর্মকর্তা আলাউদ্দিন সরকার জানান, তাদের প্রায় ৫০০ বই ভিজে গেছে। এসব বই স্টল থেকে সরিয়ে নেওয়া হবে।

শিশুরাজ্য প্রকাশনীর কর্ণধার আক্কাস খান বলেন, ‘আমার স্টলের ওপরের অংশ ভেঙে গিয়েছে। সব তছনছ হয়ে গেছে এসে দেখি। আমার আজকে শুরু করতে একটু দেরি হবে।’

তবে এবারই প্রথম বইমেলা বৃষ্টির কবলে পড়ল তেমনটা নয়, আগেও হয়েছে। সেই পূর্ব অভিজ্ঞতা থেকে অনেকেই এবার বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছেন। প্রথমার প্রকাশনীর বিক্রয়কর্মী আজিজুর রহমান বলেন, ‘আমাদের তিন স্তরে ব্যবস্থা নেওয়া আছে। এবার আমরা রক্ষা পেয়েছি।’

এ ছাড়া ঐতিহ্যের বিক্রিয় কর্মী গোলাম হাক্কানী জানান, গতকালই মেলায় মাইকে আগামী তিন দিন ঝড় হতে পারে তা জানিয়ে দেওয়া হয়। তারা সেভাবেই প্রস্তুতি নিয়ে রাখায় ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পেয়েছেন।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে জানানো হয়, ফেব্রুয়ারি মাসের দ্বিতীয়ার্ধে দেশের উত্তর ও উত্তর পশ্চিমাঞ্চলে শিলা ও বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দুই এক জায়গায় বৃষ্টি হতে পারে। বৃষ্টি হলেও দিন ও রাতের বেলা তাপমাত্রা বাড়তে পারে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন