[english_date], [bangla_day]

হুন্ডির কালো কারবারে জড়িত বরিশালের যেসব ‘রুই-কাতলা’

আপডেট: February 21, 2019

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

হুন্ডির মাধ্যমে অর্থ পাচারের সঙ্গে জড়িতদের মধ্যে চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিভাগের চিহ্নিত অনেক মাদক কারবারিও রয়েছেন। আবার এ তালিকার কেউ কেউ স্বর্ণ চোরাচালানের সঙ্গেও জড়িত। বেশ কয়েকজন ‘রুই-কাতলা’ আছেন তালিকায়। গোয়েন্দা প্রতিবেদনের তথ্যে অর্থ পাচারকারীদের মধ্যে চট্টগ্রাম জেলার আছেন ১১ জন। চট্টগ্রাম মহানগর এলাকার রয়েছেন ৪৫ জন। হুন্ডির মাধ্যমে অর্থ পাচারকারীদের তালিকায় রয়েছেন কক্সবাজারের সাবেক এমপি আবদুর রহমান বদির নামও। এরই মধ্যে এ তালিকার সূত্র ধরে গোয়েন্দারা জড়িতদের ব্যাপারে আরও তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করছেন। সংশ্নিষ্ট একাধিক সূত্র থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

তালিকায় বরিশাল বিভাগে শীর্ষ হুন্ডি ব্যবসায়ী যারা :বরিশাল বিভাগের মধ্যে ভোলা জেলায় সর্বোচ্চ ৪৩ জন হুন্ডি ব্যবসায়ী রয়েছেন। এর মধ্যে ৮ জনকে হুন্ডির মাধ্যমে বিদেশে টাকা, বৈদেশিক মুদ্রা পাচারের সিন্ডিকেট প্রধান বা মূলহোতা হিসেবে চিহ্নিত করেছে গোয়েন্দারা। এ ছাড়া পিরোজপুর জেলার ১১ জন ও ঝালকাঠি জেলায় ৬ জন শীর্ষ হুন্ডি ব্যবসায়ীর নাম উঠে এসেছে। ভোলার ৪৩ জন হুন্ডি ব্যবসায়ীর মধ্যে সুধীর চন্দ্র দত্ত, উত্তম সেন, রতন পোদ্দার, বাবুল চন্দ্র পোদ্দার, উত্তম কুমার দে, শ্যাম কুন্ডু, দশরত কর্মকার, শুভঙ্কর কর্মকার, সুধারাম চন্দ্র দাস, রাম চন্দ্র দাস, উপেন্দ্র চন্দ্র কর্মকার, ভাস্কর সাহা, শম্ভু কর্মকার, অরূপ কর্মকার, রনজিত পোদ্দার, রাজীব হালদার, বাবুলাল কর্মকার, গৌতম কর্মকার, গোপাল কর্মকার, নিলয় কর্মকার, অজিত কর্মকার, সাধন চন্দ্র বণিক, রিপন বাবু, কার্তিক চন্দ্র দাস, ভোলানাথ কর্মকার, অভিমন্যু কর্মকার, মনোরঞ্জন চন্দ্র, পরিমল পাল, কালীপদ রায়, লিটন চন্দ্র বণিক, তাপস চন্দ্র বিশ্বাস, নারায়ণ চন্দ্র দাস, বিক্রম রায় কর্মকার, বাবুল সাহা ওরফে রুটি বাবুল।

ভোলা জেলায় হুন্ডির মূলহোতা ৮ জন হলেন- অসীম সাহা, অরবিন্দ দে, মনা চন্দ্র মন্ডল, অবিনাশ নন্দী, মিন্টু লাল দে, রতন চন্দ্র পোদ্দার, শ্যামল চন্দ্র মন্ডল এবং বিক্রম চন্দ্র মন্ডল।

পিরোজপুরের ১১ জন হুন্ডি ব্যবসায়ীর মধ্যে শংকর কুমার দেবনাথ, অমল বণিক, সুভাষ দে, শংকর পাল, পঙ্কজ হালদার, রিপন হালদার, সজীব মন্ডল গোপাল, নিকুঞ্জ কর্মকার, বিমল কর্মকার, সতীন্দ্রনাথ মজুমদার এবং সুশীল কুমার মন্ডল।

ঝালকাঠি জেলার ৬ হুন্ডি ব্যবসায়ী হলেন- গোপাল চন্দ্র ঘোষ, রতন আচার্য, লিটন দেবনাথ, অরুণ কর্মকার, গৌতম কর্মকার এবং মাওলানা জামাল হোসেন। বরিশাল বিভাগের বেশির ভাগ হুন্ডি ব্যবসায়ী জুয়েলারি ব্যবসা, বস্ত্র ব্যবসা ও ওষুধ ব্যবসার আড়ালে বিদেশে টাকা পাচার করে আসছেন বলে গোয়েন্দা তালিকায় নাম উঠে এসেছে।

সূত্রঃ সমকাল

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন